লঙ্কান ও ব্রিটিশ ফটোগ্রাফারের চোখে আশ্চর্য এক বাংলাদেশ

Published

Search Icon Search Icon Search Icon Search Icon

[টীকাঃ বাংলাদেশে Roar চালু হয়েছে শুনে আমাদের Roar.lk এর একজন লেখক তার বাংলাদেশ ভ্রমণের ছবিগুলো আমাদের পাঠান। এই ছবিগুলো লেখক ও তার ব্রিটিশ সহকর্মী জন স্টেনলেকের তোলা। Asian University for Women এর একটি প্রজেক্টের আওতায় বাংলাদেশে অবস্থানকালে ছবিগুলো তুলেছিলেন তারা।]

১৯৭১ সালে এক রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মধ্যে দিয়ে জন্ম নেয়া বাংলাদেশের মানুষের জীবনযাপনের কিছু চিত্র তুলে ধরাই ছিলো আমাদের উদ্দেশ্য। ১৬ কোটি মানুষের এই দেশ প্রগতি আর সমৃদ্ধির ঐক্যতানে এগিয়ে চলছে ‘আমার সোনার বাংলা’ গড়ে তোলার লক্ষ্যে। দেশটির ৩১.৫% মানুষ এখনো দারিদ্র্য সীমার নিচে বাস করছে সত্যি। কিন্তু দৈনন্দিন প্রাত্যহিকতায় এর অভাবনীয় বৈচিত্র্য, সাধারণ মানুষের অমায়িক স্বভাব আর আতিথেয়তায় বিশ্বখ্যাতি বাঙালিকে করেছে সারাবিশ্বের মাঝে অনন্য।

পৃথিবীর অন্যতম একটি ঘনবসতিপূর্ণ দেশ বাংলাদেশ। এখানকার শহরে শহরে আছে উঁচু অট্টালিকার সমাহার, মিল-কারখানা ছড়িয়ে আছে এখানে সেখানে। কিন্তু এসব ছাড়িয়ে আছে নয়নাভিরাম একের পর এক গ্রাম। নদীর দু’কুল ছাড়িয়ে আছে মাঠের পর মাঠ শস্যক্ষেত। নদী বন্দর, সমুদ্র বন্দরে অসংখ্য জাহাজ যেমন আছে, আছে পৃথিবীর সবচেয়ে লম্বা সমুদ্র সৈকত, কক্সবাজার সমুদ্রসৈকত। আছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় ম্যানগ্রোভ বন সুন্দরবন, এর মায়াবী হরিণ, বিশ্বখ্যাত রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার। শহরগুলো বাদ দিলে পুরো দেশটাই যেন শিল্পীর নিপুণ হাতে আঁকা একটি ছবি।

বাঙালি কর্মঠ জাতি। বিশ্বের নামকরা সংস্থা BRAC আর Grameen Bank এর জন্ম এখানে। ভৌগোলিক কারণে মানুষগুলোও পারে বেশ পরিশ্রম করতে। এই যেমন, প্রায়ই দেখা যায় একটা ঠেলাগাড়ি করে একজন শ্রমিক বহন করছে ৩/৪ টা ফ্রিজ আর বেশ কয়েকটা সেলাইয়ের মেশিন, ভাবা যায়! এক রিকশায় দেখা যায় ৩/৪ জনকে বহন করে নিয়ে যাচ্ছে মাইলের পর মাইল। কিন্তু পারিশ্রমিক একেবারেই নামমাত্র। এমন সস্তা শ্রম পৃথিবীর খুব কম দেশেই দেখা যায়।

এই সোনার বাংলা যেন এলিসের সেই ওয়ান্ডারল্যান্ড। দিনের শুরুতেই এলিসের সেই গল্পের মতোই অসাধ্য সাধন করে বেড়ায় বাঙ্গালিরা। সাহসিকতা, মায়াময়তা আর রোমাঞ্চে ভরপুর, কী অসাধারণ এদের জীবনযাপন! হয়তো কোনো কিছুই এখানে সহজ নয়, কিন্তু পরিশ্রম, চেষ্টা আর লেগে থাকার যে অন্তর্নিহিত শক্তি, তাতে যেকোনো অসম্ভবকে সম্ভব করতে পটু এই জাতি।

y1

নোঙ্গর ফেলা জাহাজ, ডুবন্ত মানুষঃ ছবিতে দেখা যাচ্ছে, জাহাজের ছায়ায় এক লোক ময়লা আবর্জনা তুলে নিচ্ছে বাজারে বিক্রির জন্য। চট্টগ্রামের সদরঘাট পোর্ট এলাকায় ছবিটা তোলা। দূরে দিগন্তে আমানত শাহ ব্রিজকে দেখা যাচ্ছে, ২০১০ সালে এটি জনগণের জন্য খুলে দেয়া হয়।

সূর্যোদয়ের খেলাঃ পুরো বাংলাদেশের একটা সাধারণ দৃশ্য এটা। সকালের স্নিগ্ধ বাতাস আর হালকা রোদের আমেজে খেলা আর শারীরিক ব্যায়ামের দুটো একসাথেই চলে। মাঠে মাঠে ক্রিকেট খেলা চললেও নদী কিংবা সমুদ্র তীরে ফুটবল খেলাই বেশি চোখে পড়ে।

সূর্যোদয়ের খেলাঃ পুরো বাংলাদেশের একটা সাধারণ দৃশ্য এটা। সকালের স্নিগ্ধ বাতাস আর হালকা রোদের আমেজে খেলা আর শারীরিক ব্যায়ামের দুটো একসাথেই চলে। মাঠে মাঠে ক্রিকেট খেলা চললেও নদী কিংবা সমুদ্র তীরে ফুটবল খেলাই বেশি চোখে পড়ে।

ম্যানগ্রোভ বনের সৈকতেঃ বিশ্বের সবচেয়ে বড় ম্যানগ্রোভ বনের পাশের এরকম প্রচুর সৈকতের দেখা মেলে। সৈকতে বালির পানিতে আকাশের প্রতিচ্ছবি আর এখানে সেখানে পড়ে থাকা ছোট ছোট ডিঙ্গি নৌকা মিলিয়ে এক অসাধারণ দৃশ্যের অবতারণা করে।

ম্যানগ্রোভ বনের সৈকতেঃ বিশ্বের সবচেয়ে বড় ম্যানগ্রোভ বনের পাশের এরকম প্রচুর সৈকতের দেখা মেলে। সৈকতে বালির পানিতে আকাশের প্রতিচ্ছবি আর এখানে সেখানে পড়ে থাকা ছোট ছোট ডিঙ্গি নৌকা মিলিয়ে এক অসাধারণ দৃশ্যের অবতারণা করে।

বাপকা বেটাঃ বাংলাদেশের উল্লেখযোগ্য মানুষের জীবিকা নির্বাহের মাধ্যম হলো মৎস্যশিল্প আর ১২৫ কিলোমিটার দীর্ঘ পৃথিবীর সবচেয়ে লম্বা সমুদ্র সৈকতে এটা একটা নিত্যকার ঘটনা। ছবিতে দেখা যাচ্ছে এক বাবা সমুদ্রে জাল ফেলে মাছ ধরছে, আর ছেলে মাছ রাখার ঝুড়ি নিয়ে বাবার মাছ ধরা দেখছে।

বাপকা বেটাঃ বাংলাদেশের উল্লেখযোগ্য মানুষের জীবিকা নির্বাহের মাধ্যম হলো মৎস্যশিল্প আর ১২৫ কিলোমিটার দীর্ঘ পৃথিবীর সবচেয়ে লম্বা সমুদ্র সৈকতে এটা একটা নিত্যকার ঘটনা। ছবিতে দেখা যাচ্ছে এক বাবা সমুদ্রে জাল ফেলে মাছ ধরছে, আর ছেলে মাছ রাখার ঝুড়ি নিয়ে বাবার মাছ ধরা দেখছে।

ধরা মাছ যাচ্ছে মার্কেটেঃ ট্রলারে জাল পেতে মাছ ধরার পর সেই মাছ বিক্রির জন্য মার্কেটে নিয়ে যাওয়া হয়। মাথাভর্তি মাছের ঝুড়ি নিয়ে সেই ট্রাক ভরছে মৎস্যশ্রমিকরা।

ধরা মাছ যাচ্ছে মার্কেটেঃ ট্রলারে জাল পেতে মাছ ধরার পর সেই মাছ বিক্রির জন্য মার্কেটে নিয়ে যাওয়া হয়। মাথাভর্তি মাছের ঝুড়ি নিয়ে সেই ট্রাক ভরছে মৎস্যশ্রমিকরা।

রাস্তার ধারে গড়ে ওঠা সেলুনঃ উত্তরবঙ্গের বগুড়ার কেন্দ্রে রাস্তার পাশে গড়ে ওঠা চুল কাটার সেলুন। গ্রাম থেকে বড় শহর ও নগরে আসা মানুষ যে বেছে নেয়অনেক ক্ষুদ্র-ব্যবসায়, তারই এক ঝলক দেখা যাচ্ছে এই ছবিতে।

রাস্তার ধারে গড়ে ওঠা সেলুনঃ উত্তরবঙ্গের বগুড়ার কেন্দ্রে রাস্তার পাশে গড়ে ওঠা চুল কাটার সেলুন। গ্রাম থেকে বড় শহর ও নগরে আসা মানুষ যে বেছে নেয়অনেক ক্ষুদ্র-ব্যবসায়, তারই এক ঝলক দেখা যাচ্ছে এই ছবিতে।

পথের পারের জীবনঃ দেশময় আন্তঃ ও অন্তঃনগরীয় যাতায়াতে ব্যবহৃত হয় বাংলাদেশের রেলপথ। শহরাঞ্চলে এইসব রেললাইনের ধার ঘেঁষে গড়ে উঠেছে মানুষের বসতি। এদের ঘরগুলো রেললাইনের খুবই কাছে থাকে।

পথের পারের জীবনঃ দেশময় আন্তঃ ও অন্তঃনগরীয় যাতায়াতে ব্যবহৃত হয় বাংলাদেশের রেলপথ। শহরাঞ্চলে এইসব রেললাইনের ধার ঘেঁষে গড়ে উঠেছে মানুষের বসতি। এদের ঘরগুলো রেললাইনের খুবই কাছে থাকে।

সাইকেলের রাজাঃ স্থানীয় জনমানুষের মধ্যে এইসব নবীনপ্রাণ বালক আপনার নজর কাড়বেই। চট্টগ্রামের পরিবর্তনশীল কাট্টলি ম্যানগ্রোভ সৈকতে সন্ধ্যায় এদের একা কিংবা দলবেঁধে বিচরণ করতে দেখা যায়। 

সাইকেলের রাজাঃ স্থানীয় জনমানুষের মধ্যে এইসব নবীনপ্রাণ বালক আপনার নজর কাড়বেই। চট্টগ্রামের পরিবর্তনশীল কাট্টলি ম্যানগ্রোভ সৈকতে সন্ধ্যায় এদের একা কিংবা দলবেঁধে বিচরণ করতে দেখা যায়।

বাঘের উত্থানঃ সাম্প্রতিক বছরগুলোতে, ‘দ্য টাইগার্স’ নামে অভিহিত বাংলাদেশের জাতীয় পুরুষ ক্রিকেট দল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট অঙ্গনে অন্যতম শক্তিশালী দল হিসেবে পরিণত হয়েছে, সঙ্গে পেয়েছে অস্ট্রেলিয়া, সাউথ আফ্রিকা, ইংল্যান্ড, ভারত ও পাকিস্তানের মত দলের বিরুদ্ধে জয়ের আনন্দ। প্রিয় খেলোয়াড়দের নায়কোচিত অর্জনে তরুণ খেলোয়াড়রা উজ্জীবিত হয়। পাশাপাশি বাংলাদেশের জাতীয় প্রমীলা ক্রিকেট দলের সমসাময়িক সাফল্য থেকে এটা আশা করাই যায় যে-ছেলেদের পাশাপাশি অনেক সংখ্যক মেয়েদেরও এইসব পার্কে ব্যাট-বল হাতে দেখা যাবে।

বাঘের উত্থানঃ সাম্প্রতিক বছরগুলোতে, ‘দ্য টাইগার্স’ নামে অভিহিত বাংলাদেশের জাতীয় পুরুষ ক্রিকেট দল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট অঙ্গনে অন্যতম শক্তিশালী দল হিসেবে পরিণত হয়েছে, সঙ্গে পেয়েছে অস্ট্রেলিয়া, সাউথ আফ্রিকা, ইংল্যান্ড, ভারত ও পাকিস্তানের মত দলের বিরুদ্ধে জয়ের আনন্দ। প্রিয় খেলোয়াড়দের নায়কোচিত অর্জনে তরুণ খেলোয়াড়রা উজ্জীবিত হয়। পাশাপাশি বাংলাদেশের জাতীয় প্রমীলা ক্রিকেট দলের সমসাময়িক সাফল্য থেকে এটা আশা করাই যায় যে-ছেলেদের পাশাপাশি অনেক সংখ্যক মেয়েদেরও এইসব পার্কে ব্যাট-বল হাতে দেখা যাবে।

তরমুজের কাফেলাঃ ফল ও শাকসবজি বিভিন্ন বন্দরগুলোতে খালাস করা হয়। পাশাপাশি প্রচুর মাছও। ছবিতে বাজারে নেবার অন্য বড় বড় আকৃতির তরমুজ সাইকেল কার্টে বোঝাই করা হচ্ছে।

তরমুজের কাফেলাঃ ফল ও শাকসবজি বিভিন্ন বন্দরগুলোতে খালাস করা হয়। পাশাপাশি প্রচুর মাছও। ছবিতে বাজারে নেবার অন্য বড় বড় আকৃতির তরমুজ সাইকেল কার্টে বোঝাই করা হচ্ছে।

উচ্ছিষ্টের উপাখ্যানঃ চট্টগ্রামের পোশাক কারখানা থেকে রাস্তার পাশে ফেলা বর্জ্যের ওপর দিয়ে ভ্যান চালিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন চালক। অসংখ্য মানুষের কর্মসংস্থানের ও উল্লেখযোগ্য রপ্তানি আয়ের পাশাপাশি বাংলাদেশের পোশাকশিল্প খাতের জটিলতাও সর্বজনবিদিত। 

উচ্ছিষ্টের উপাখ্যানঃ চট্টগ্রামের পোশাক কারখানা থেকে রাস্তার পাশে ফেলা বর্জ্যের ওপর দিয়ে ভ্যান চালিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন চালক। অসংখ্য মানুষের কর্মসংস্থানের ও উল্লেখযোগ্য রপ্তানি আয়ের পাশাপাশি বাংলাদেশের পোশাকশিল্প খাতের জটিলতাও সর্বজনবিদিত।

class

শনিবারের ক্লাসঃ এইউডব্লিউ কে ধন্যবাদ। জন এবং চঞ্চলা শ্রীলংকা ও বাংলাদেশসহ ১৫ টির বেশি দেশের মেয়েদের সাথে কাজ করতে পেরে গর্বিত। আত্মশক্তি ও সম্ভাবনা উপলব্ধির পাশাপাশি সুযোগ ও সামর্থ্যের পরিপ্রেক্ষিতে উচ্চ শিক্ষা কতটা ব্যবধান গড়ে দিতে পারে তা এই মেয়েরা দেখিয়ে দিয়েছে। এই কাজের অংশ হিসেবে আমরা এও ভালোভাবেই জানি যে, হোক সে অর্থনৈতিক, সামাজিক কিংবা গঠনগত কারণ- এই সকল সুযোগ-সুবিধা থেকে মেয়েদেরই বঞ্চিত হবার প্রবণতা বেশি। শনিবারের সুন্দর সকালেও কিশোরী মেয়েদের সাগ্রহে ক্লাসে যাবার দৃশ্য আমাদের উৎসাহ যোগায়। (শুক্র ও শনিবার বাংলাদেশের সাপ্তাহিক ছুটির দিন)।

ফ্রেমে বন্দী হাসিঃ মেয়ে হওয়ার জন্যই মেয়েদের ছবি তোলার অনুমতি জন এর তুলনায় চঞ্চলার ভাগ্যেই বেশি জোটে। চট্টগ্রামের এক গ্রামে এই মেয়ে গুলোর দেখা পান তিনি যেখানে ছবির জন্য গুরুগম্ভীরভঙ্গিমা নিয়েছিল তারা।ভাঙ্গা ভাঙ্গা বাংলায় কথা বলে এদের জড়তা কাটিয়ে অবশেষে এই স্বচ্ছন্দ ও আনন্দঘন মুহূর্তের ছবিটি তুলতে সক্ষম হন তিনি।

ফ্রেমে বন্দী হাসিঃ মেয়ে হওয়ার জন্যই মেয়েদের ছবি তোলার অনুমতি জন এর তুলনায় চঞ্চলার ভাগ্যেই বেশি জোটে। চট্টগ্রামের এক গ্রামে এই মেয়ে গুলোর দেখা পান তিনি যেখানে ছবির জন্য গুরুগম্ভীরভঙ্গিমা নিয়েছিল তারা।ভাঙ্গা ভাঙ্গা বাংলায় কথা বলে এদের জড়তা কাটিয়ে অবশেষে এই স্বচ্ছন্দ ও আনন্দঘন মুহূর্তের ছবিটি তুলতে সক্ষম হন তিনি।

ধানে ভরা ধরাঃ বাংলাদেশের কৃষির মধ্যে মুখ্য হলো ধান উৎপাদন- ওপর থেকে তোলা এ আদিগন্তবিস্তৃত ছবিটিই বুঝিয়ে দেয় সেটা কেনো! দিনাজপুরে তোলা এই ছবিটি বাংলাদেশের খুবই সাধারণ একটি দৃশ্যের নির্দেশক কারণ বাংলাদেশের শতকরা ৭৫ ভাগ কৃষিজমির ব্যবহার ধান চাষের জন্য হয়ে থাকে। 

ধানে ভরা ধরাঃ বাংলাদেশের কৃষির মধ্যে মুখ্য হলো ধান উৎপাদন- ওপর থেকে তোলা এ আদিগন্তবিস্তৃত ছবিটিই বুঝিয়ে দেয় সেটা কেনো! দিনাজপুরে তোলা এই ছবিটি বাংলাদেশের খুবই সাধারণ একটি দৃশ্যের নির্দেশক কারণ বাংলাদেশের শতকরা ৭৫ ভাগ কৃষিজমির ব্যবহার ধান চাষের জন্য হয়ে থাকে।

ফসলে রঙিন সোনার বাংলাঃ চট্টগ্রামের রাউজানে বিপুল পরিমাণে কাটা ফসল গোধূলিলগ্নে নিয়ে আসার সময় জীবন্ত হয়ে ওঠে বাংলার সোনালি রূপ। বাংলাদেশের শতকরা প্রায় ৪৮* ভাগ মানুষ কৃষিকাজের সাথে জড়িত। (*ওয়ার্ল্ড ব্যাঙ্ক এন্ড সিআইএ ফ্যাক্টবুক ডাটা ২০১৬)।

ফসলে রঙিন সোনার বাংলাঃ চট্টগ্রামের রাউজানে বিপুল পরিমাণে কাটা ফসল গোধূলিলগ্নে নিয়ে আসার সময় জীবন্ত হয়ে ওঠে বাংলার সোনালি রূপ। বাংলাদেশের শতকরা প্রায় ৪৮* ভাগ মানুষ কৃষিকাজের সাথে জড়িত। (*ওয়ার্ল্ড ব্যাঙ্ক এন্ড সিআইএ ফ্যাক্টবুক ডাটা ২০১৬)।

নৌকার মাঝিঃ বাংলাদেশের জলপথ দেশজুড়ে ব্যবসায় এবং পরিবহণের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম এবং তা প্রতিদিনই ভরে ওঠে নানান আকার আকৃতির নৌযান এ। যশোর জেলায় এক পড়ন্ত বিকেলে একাকী সময় কাটানোর মুহূর্তে এই মাঝিকে ক্যামেরাবন্দী করেন জন।  

নৌকার মাঝিঃ বাংলাদেশের জলপথ দেশজুড়ে ব্যবসায় এবং পরিবহণের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম এবং তা প্রতিদিনই ভরে ওঠে নানান আকার আকৃতির নৌযান এ। যশোর জেলায় এক পড়ন্ত বিকেলে একাকী সময় কাটানোর মুহূর্তে এই মাঝিকে ক্যামেরাবন্দী করেন জন।

চঞ্চলা এবং জন জানেন যে, তারা এই দেশে বহিরাগত এবং তাদের কাজও সেই আলোকে দেখা উচিৎ। তারা এও জানেন বাংলাদেশের নিজস্ব কিছু সংখ্যক অত্যন্ত খ্যাতিমান ও অনন্যসাধারণ মেধাবী রয়েছে  এবং তারা আপনাকে পরবর্তী অন্বেষণে প্রেরণা যোগাবেন, এরা হলেনঃ

১) সাইফুল হক অমি- ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক অ্যাওয়ার্ডপ্রাপ্ত আন্তর্জাতিক আলোকচিত্রী যার বাংলাদেশ ও মায়ানমারের উদ্বাস্তু রোহিঙ্গা রিফিউজিদের ওপর ৬ বছরব্যাপী কাজ তাদের বিস্ময়কর বিধ্বংসী অবস্থাকে তুলে ধরেছে। চট্টগ্রামের জাহাজ-ভাঙ্গা ইয়ার্ডের ওপরেও অসাধারণ কাজ রয়েছে তার।

২) তাসলিমা আক্তার- ২০১৩ সালে রানা প্লাজা ধ্বসের ঘটনায় ধ্বংসস্তূপ এ চাপা পড়া আলিঙ্গনরত জুটির মৃতদেহের আলোচিত ছবিটি তুলেছিলেন এই প্রামাণ্য আলোকচিত্রী।

৩) শিহাব উদ্দিনঃ ইনি একজন প্রাক্তন ফটোজার্নালিস্ট যিনি দারিদ্র্যসীমার বিভিন্ন স্তরে বসবাসরত মানুষের সাথে বসবাস ও তাদের সাথে কাজ করেছেন যাতে শক্তিশালী ও তথ্যাভিজ্ঞ সহযোগিতায় তাদের দৈনন্দিন অভিজ্ঞতাকে জীবন্ত ফুটিয়ে তোলা যায়।

৪) শামীম শরিফ সুষমঃ বাংলাদেশী এই বিমানচালক মাটির উপর থেকে বাংলাদেশী ভূদৃশ্যের শ্বাসরুদ্ধকর সব ছবি তোলেন।

৫) তানিয়া রশিদঃ বাংলাদেশী-আমেরিকান তানিয়া ভাইস নিউজের একজন প্রাক্তন প্রতিবেদক এবং বর্তমানে ন্যাট জিও এর সাথে জড়িত আছেন। বাংলাদেশের বৃহত্তম পতিতালয়-গ্রাম দৌলতদিয়ার প্রতি তার গভীর দৃষ্টিভঙ্গি ও কাজ, বাংলাদেশের প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে নারীদের প্রতি সহিংসতার ওপর তার কাজ, নির্বাচনী সহিংসতার উপর প্রতিবেদন এবং অন্যান্য কাজ এমন এক জগতে প্রবেশাধিকার ও অন্তদৃষ্টি দেয় যা অবিশ্বাস্য।

বাংলাদেশে এবং অন্যান্য স্থানে ভ্রমণকালে চঞ্চলা এবং জন এর তোলা আরো ছবি পাবেন ইনস্টাগ্রাম এর এই ঠিকানায়ঃ : grlwhocntbestill এবং jestanlake

এইউডব্লিউ ফটোগ্রাফি ক্লাব (জন এটির বিভাগীয় উপদেষ্টা) এর ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট এও ঘুরে আসতে পারেন এই ঠিকানায়ঃ AUW Photography Club । ক্লাবটি একটি বার্ষিক আলোকচিত্র উৎসব এর আয়োজন করে যা আন্তর্জাতিক অংশগ্রহণের জন্য উন্মুক্ত।

y17

জয় বাংলা!

এই লেখা নিয়ে আপনার অনুভূতি কী?

Fascinated
Informed
Happy
Sad
Angry
Amused

মন্তব্যসমূহ